সামরিক শক্তিতে আমেরিকার সমান হতে চাই: কিম জং-উন

সামরিক শক্তিতে আমেরিকার সমান হতে চাই: কিম জং-উন

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন তার দেশের সামরিক শক্তিকে আমেরিকার সম অবস্থানে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ উত্তর কোরিয়ার সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের কঠোর নিন্দা জানানোর পরপরই এ অঙ্গীকার ঘোষণা করেন কিম।

কিম জং-উনের বরাত দিয়ে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ জানিয়েছে, তিনি বলেছেন, “সামরিক শক্তিতে আমেরিকার সম অবস্থানে পৌঁছানো হচ্ছে আমাদের চূড়ান্ত লক্ষ্য যাতে মার্কিন শাসকরা আর কখনো উত্তর কোরিয়ায় সামরিক হামলার হুমকি দেয়ার ধৃষ্টতা না দেখায়।”

উত্তর কোরিয়ার নেতা বলেন, শুক্রবার তার দেশের পক্ষ থেকে নিক্ষিপ্ত ক্ষেপণাস্ত্র নিখুঁতভাবে তার লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হেনেছে।  পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দেয়া সত্ত্বেও দেশের পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচিকে পরিপূর্ণতা দেয়ারও ঘোষণা দেন কিম জং-উন।

শুক্রবার উত্তর কোরিয়া জাপানের উপর দিয়ে মাঝারি-থেকে-দূরপাল্লার হুয়াসং-১২ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে। ওই ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের কয়েক ঘণ্টা আগে জাপানকে ‘সাগরে ডুবিয়ে’ দেয়ার হুমকি দিয়েছিল পিয়ংইয়ং।

ক্ষেপণাস্ত্রটি আকাশে উড্ডয়নের পর জাপানের কর্মকর্তারা নিয়মিত টেলিভিশন অনুষ্ঠান বন্ধ করে হোক্কাইদো দ্বীপের অধিবাসীদেরকে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাওয়ার আহ্বান জানান এবং জনগণ সে আহ্বানে সাড়া দেয়। কিন্তু ক্ষেপণাস্ত্রটি হোক্কাইদো দ্বীপে আঘাত হানার পরিবর্তে এর আকাশ দিয়ে উড়ে যায় এবং দ্বীপটিকে অতিক্রম করে আরো ২,২০০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে সাগরে পতিত হয়।

শুক্রবার রাতেই জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ এক জরুরি বৈঠকে বসে ওই ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের তীব্র নিন্দা জানালেও নতুন করে কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়নি।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট