হাজার কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় ‘জোস’

হাজার কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড় ‘জোস’

প্রথমে হার্ভে, তারপর ইরমা। একের পর এক ঘূর্ণিঝড়ে বিপর্যস্ত আমেরিকা। এবার নিউ ইয়র্কের উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে আরও একটি ভয়ঙ্কর ঝড়। যার নাম ‘জোস’। আগামী সপ্তাহেই ওই ঝড় আছড়ে পড়বে বলে জানিয়েছে ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার অ্যাডভাইসরি। ৬৪০ মাইল বেগে উপকূলের দিকে এগিয়ে আসবে ‘জোস’। আগামী বুধবার সকালের মধ্যেই আছড়ে পড়বে নিউ জার্স ও নিউ ইয়র্কে।

জানা গিয়েছে, বর্তমানে ৭০ মাইল প্রতি ঘণ্টা বেগ রয়েছে জোসের। পূর্ব উপকূলের পাঁচটি অঞ্চলে এর প্রভাব পড়তে পারে। বিশেষ করে সমুদ্রে আসা ক্রুড অয়েলের ভেসেলকে চূর্ণ-বিচূর্ণ করে দিতে পারে এই ঝড়। তবে বড়সড় প্রভাব পড়বে না বলে আশা করা হচ্ছে। কারণ উপকূলের অনেক দূরেই হয়ত গতি হারাবে ওই ঝড়।

কিছুদিন আগেই টেক্সাসে আঘাত করে সবথেকে শক্তিশালী ঝড় হার্ভে। ঘণ্টায় ২১৫ কিলোমিটার গতিতে টেক্সাসের কয়েকটি এলাকায় আছড়ে পড়ে ঝড়। এরপর দীর্ঘক্ষণ তাণ্ডব চালায়। বহু মানুষের মৃত্যু হয় ওই ঝড়ে। তার রেশ কাটতে না কাটতেই আমেরিকার উপর আছড়ে পড়ে ইরমা। যা নাকি, ১০০ বছরের ইতিহাসে একটি অন্যতম ভয়ঙ্কর ঝড়।

তীব্র আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করে মার্কিন মুলুকের ফ্লোরিডায় ঢুকে পড়ে সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড় ইরমা৷ প্রবল ঝোড়ো হওয়ায় সেখানকার জনজীবন আগেই বিপর্যস্ত৷ সমুদ্র উত্তাল৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে ফ্লোরিডার উপকূল সংলগ্ন বাসিন্দাদের নিরাপদ দূরত্বে সরানোর সময়সীমা শেষ৷ প্রদেশটির গভর্নর রিক স্কট বলেছেন, ইরমার আকারে ফ্লোরিডা রাজ্যের থেকেও বড়।

ঝড়ের প্রভাবে এখন ফ্লোরিডার দক্ষিণ-পূর্ব এলাকার উপকূলে দেখা দিয়েছে তীব্র জলোচ্ছ্বাস ৷ অন্তত দু’শো কিলোমিটার বেগে হাওয়া বইছে। ইরমার প্রভাবে সমুদ্রের ঢেউ ফ্লোরিডার উপকূলে ধংসাত্মক পরিস্থিতি তৈরি করেছে৷

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট