আপাতত ভেটো ছাড়াই নিরাপত্তা পরিষদে আসুক ভারত, বার্তা আমেরিকার

আপাতত ভেটো ছাড়াই নিরাপত্তা পরিষদে আসুক ভারত, বার্তা আমেরিকার

নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী আসন পেতেই পারে ভারত, কিন্তু ভেটো ক্ষমতা পাওয়ার জন্য দর কষাকষি করা উচিত নয় নয়াদিল্লির। বার্তা আমেরিকার। রাষ্ট্রপুঞ্জে নিযুক্ত মার্কিন দূত নিকি হ্যালি মঙ্গলবার জানিয়েছেন, আমেরিকা রাষ্ট্রপুঞ্জ নিরাপত্তা পরিষদে ভারতকে স্থায়ী সদস্যপদ দেওয়ার পক্ষে। কিন্তু, ভারত এখনই ভেটো ক্ষমতা চাইলে নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী আসন পাওয়া কঠিন হয়ে উঠবে।

ইন্ডিয়া-ইউএস ফ্রেন্ডশিপ কাউন্সিল আয়োজিত আলোচনা সভায় মঙ্গলবার যোগ দিয়েছিলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন রাজনীতিক তথা কূটনীতিক নিকি হ্যালি। রাষ্ট্রপুঞ্জের কাঠামো সংস্কারের বিষয়ে তিনি জানান, আমেরিকাও চায় রাষ্ট্রপুঞ্জের কাঠামো সংস্কার হোক, নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী সদস্যের সংখ্যা বাড়ুক। কিন্তু, ভেটো ব্যবস্থার পরিবর্তন আমেরিকা চায় না বলে তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন। শুধু আমেরিকা নয়, রাষ্ট্রপুঞ্জ নিরাপত্তা পরিষদের বাকি চার সদস্য রাশিয়া, ব্রিটেন, ফ্রান্স, চিনও ভেটো ব্যবস্থায় কোনও সংস্কার চায় না বলে নিকি হ্যালির দাবি। তিনি জানিয়েছেন, নিরাপত্তা পরিষদে বর্তমানে যে পাঁচটি দেশ স্থায়ী সদস্য হিসেবে রয়েছে, তাদের কেউই ভেটো ক্ষমতা ছাড়তে রাজি নয়, নতুন কোনও স্থায়ী সদস্যকে ভেটো ক্ষমতা দিতেও এই পাঁচ দেশ রাজি নয়। তাই ভারত ভেটো ক্ষমতা পাওয়ার জন্য জোরাজুরি করলে নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী সদস্যপদ পাওয়া আরও কঠিন হয়ে উঠবে বলে নিকি হ্যালির মত।

২০১০ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রথম বার ভারতকে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। তার পরে চলতি বছরের জুন মাসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মার্কিন সফরের সময়ে ট্রাম্প প্রশাসন ফের জানায়, নিরাপত্তা পরিষদে ভারতের স্থায়ী সদস্যপদের দাবিকে সমর্থন জানাবে আমেরিকা। এ বার বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললেন রাষ্ট্রপুঞ্জে নিযুক্ত মার্কিন দূত নিকি হ্যালিও। স্পষ্ট জানালেন, ভেটো ক্ষমতার সংস্কার এখনই সম্ভব নয়। তবে নিরাপত্তা পরিষদে স্থায়ী সদস্যের সংখ্যা বাড়ানো এবং সেখানে ভারতের অন্তর্ভুক্তিতে আমেরিকার সমর্থন রয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট