রুশ প্রেসিডেন্ট পদে লড়াইয়ের ঘোষণা পুতিনের রাজনৈতিক গুরুর কন্যার

রুশ প্রেসিডেন্ট পদে লড়াইয়ের ঘোষণা পুতিনের রাজনৈতিক গুরুর কন্যার

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন তার এক সময়ের রাজনৈতিক পরামর্শদাতা অ্যানাটোলি সোবহকের কন্যা সেনিয়া সোবহক। আগামী মার্চে অনুষ্ঠিত হবে রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। বরাবরের মতো ওই নির্বাচনেও পুতিন নিজের জয় লাভের ব্যাপারে আশাবাদী।

সোবচক একাধারে রুশ সমাজতান্ত্রিক, টিভি ব্যক্তিত্ব, বিরোধী সক্রিয় কর্মী এবং উদারনৈতিক সাংবাদিক। তার বাবা অ্যানাটোলি সোবহক ছিলেন পুতিনের রাজনৈতিক গুরু এবং সেন্ট পিটার্সবার্গের সাবেক মেয়র।

সেনিয়া সোবহক বিরোধীদলীয় বিভিন্ন প্রতিবাদে অংশ নিয়েছেন। রাশিয়ার টিভি ‘রেইন’কে দেয়া একটি সাক্ষাত্কারে বলেন, ‘গত ১৭ বছর ধরে রাশিয়ায় একটি সম্পূর্ণ নতুন প্রজন্মের জন্ম হয়েছে। তারা একটি সভ্য এবং ইউরোপীয় ধাঁচের একটি ভিন্ন রাশিয়া দেখতে চায়।’ ওই সাক্ষাৎকারে তিনি তার প্রার্থীতা ঘোষণা করেন।

তবে, বিশ্লেষকরা বলছেন যে তার প্রার্থীতা নির্বাচনে বৈধতা বাড়ানোর জন্য এবং উদারনৈতিক বিরোধী দলকে বিভক্ত করার জন্য। তারা মনে করছেন এর পিছনে ক্রেমলিনের সমর্থন রয়েছে।

দেশটির সবচেয়ে জনপ্রিয় বিরোধীদলীয় ব্যক্তিত্ব আলেক্সি নাভালনিকে সম্ভবত নির্বাচন থেকে দূরে রাখার একটি প্রচেষ্টা হিসেবে সোবচককে নিয়ে আসা হচ্ছে।

সোবচক পুতিনের সরাসরি সমালোচনা করা থেকে নিজেকে বিরত রেখেছেন। তার প্রার্থীতার পিছনে ২০১২ সালের অলিগারচ মিখাইল প্রখোরভের মতোই অনেক কিছু দেখা হচ্ছে। মিখাইল প্রখোরভ কখনোই সিরিয়াসলিভাবে ক্রেমলিনের সমালোচনা করেননি এবং একটি অস্পষ্ট পরিবর্তনের প্ল্যাটফর্মের মধ্যে দাঁড়িয়ে ছিলেন। ওই নির্বাচনে তিনি মাত্র ৮ শতাংশ ভোট পেয়েছিলেন।

বুধবারের ওই সাক্ষাৎতারে সোবচাক স্বীকার করেছেন যে তিনি তার টেলিভিশন অনুষ্ঠানের জন্য সম্প্রতি পুতিনের একটি সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। এসময় তিনি জানান, তিনি প্রেসিডেন্ট পদে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং পুতিনকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। তবে বিষয়টিতে পুতিন ‘খুশি’ হননি বলে তিনি জানান।

অনেক রাশিয়ানও তার নির্বাচনের ধারণাকে অকল্পনীয় বলে মনে করছেন। তিনি প্রেসিডেন্ট পদের জন্য লড়াই করার সিদ্ধান্ত স্বাধীনভাবে নিয়েছেন কিনা তা নিয়ে জল্পনা চলছে।

গত সেপ্টেম্বরে ‘ভিডোমোস্টি’ পত্রিকার খবরে বলা হয়েছিল যে, নির্বাচনে সোবহচকের দাঁড়ানোর বিষয়ে জানার জন্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রশাসন থেকে বিবেচনা করা হচ্ছে।

এব্যাপারে সোবচক তার ব্লগে লিখেন, ‘এটি একটি মিথ্যা কথা। এই সম্পর্কে প্রেসিডেন্টশিয়াল প্রশাসনের সঙ্গে আমার কোন সরাসরি বা পরোক্ষ যোগাযোগ নেই। আমার তাদের আশীর্বাদের কোনো প্রয়োজন নেই। আমার নিজের জন্য কি করতে হবে তা আমি নিজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারি।’

১৯৯০ এর দশকে অ্যানাটোলি সোবহক সেন্ট পিটার্সবার্গের মেয়র ছিলেন এবং পুতিন ছিলেন তার ডেপুটি। তিনি ২০০০ সালে সালে মারা যান। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট অনেক অনুষ্ঠানেই তার রাজনৈতিক ঋণের বিষয়ে অ্যানাটোলি সোবচকের নাম কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেছেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট