আপন জুয়েলার্সের ৩ মালিক কারাগারে

আপন জুয়েলার্সের ৩ মালিক কারাগারে

মুদ্রা পাচার ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের করা পৃথক পাঁচ মামলায় আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ সেলিম, আজাদ আহমেদ ও গুলজার আহমেদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

দিলদার আহমেদকে উত্তরা পূর্ব, রমনা ও ধানমন্ডি থানার শুল্ক আইনে দায়ের করা মামলায় মহানগর হাকিম নুরুন্নাহার ইয়াসমিন ও দেবব্রত বিশ্বাস জামিন নামঞ্জুরের আদেশ দেন।

এছাড়া গুলশান থানার দুই মামলায় দিলদার আহমেদের ভাই আজাদ আহমেদ ও গুলজার আহমেদের জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন মহানগর হাকিম আহসান হাবিব।

মঙ্গলবার ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তারা আত্মসমর্পণ করে জামিন চান। এর আগে রোববার ও সোমবার আপন জুয়েলার্সের মালিকদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

গত ১২ই আগস্ট চোরাচালানের মাধ্যমে আনা প্রায় ১৫ মণ স্বর্ণ ও ডায়ামন্ড জব্দের ঘটনায় এবং এসব মূল্যবান ধাতু কর নথিতে অপ্রদর্শিত ও গোপন রাখার দায়ে আপন জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে মুদ্রা পাচার প্রতিরোধ আইনে পাঁচটি মামলা করে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ।

এর মধ্যে গুলশান থানায় দুটি (মামলা নং- ১৫ ও ১৬), ধানমন্ডি থানায় একটি (মামলা নং- ১০), রমনা থানায় একটি (মামলা নং- ২৭) এবং উত্তরা পূর্ব থানায় একটি (মামলা নং- ১৭) ফৌজদারি মামলা করা হয়।

প্রসঙ্গত, দিলদার আহমেদের ছেলে সাফাত আহমেদ রাজধানীর বনানীর রেইনট্রি হোটেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক