পাকিস্তানকে ধর্মবিদ্বেষী রাষ্ট্রের তকমা দিতে কোমর বাধল আমেরিকা

পাকিস্তানকে ধর্মবিদ্বেষী রাষ্ট্রের তকমা দিতে কোমর বাধল আমেরিকা

সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর নয়, বরং পাকিস্তানকে ধর্মবিদ্বেষী রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করার দাবি তুলল খোদ ট্রাম্প প্রশাসন৷ সেক্রেটারি অফ স্টেট রেক্স টিলারসনের কাছে এই বিষয়ে চিঠি পাঠিয়েছেন একাধিক সেনেটর। ধর্ম বিদ্বেষের ঘোরতর অভিযোগ থাকায় পাকিস্তানকে কান্ট্রি অব পার্টিকুলার কনসার্ন ঘোষণা করার দাবি তোলা হয়েছে।

কোনও দেশ যদি ধর্ম সংক্রান্ত স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করে, তাহলে ইন্টারন্যাশনাল ফ্রিডম অ্যাক্টের আওতায় আমেরিকা সেই দেশকে এই কান্ট্রি অব পার্টিকুলার কনসার্ন তকমা দিয়ে থাকে। সাধারণত ধর্মের জন্য যদি মানুষের উপর নৃশংস অত্যাচারের ঘটনা ঘটে, তবেই সেই দেশকে এমন তকমা দেওয়া হয়। বব মেনেনডেজ, মার্কো রুবিও, ক্রিস কুনস, টোড ইয়ং, জেফ মার্কলে ও জেমস ল্যাংকফোর্ড নামে ছয় মার্কিন সেনেটর এই চিঠি দিয়েছেন।

আগামী ১৩ নভেম্বরের মধ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিতে হবে মার্কিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে। বিভিন্ন সময়ে পাকিস্তানে ধর্মবিদ্বেষী আইনকে হাতিয়ার করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর অত্যাচার চালানো হয়েছে। এই অত্যাচারের জেরে বহু পাক সংখ্যালঘু হিন্দু-বৌদ্ধ দেশ ছেড়ে বিভিন্ন দেশে বিশেষত ভারতে আশ্রয় নিচ্ছেন। পাকিস্তানের সংখ্যালঘু উন্নয়ন মন্ত্রক থাকলেও তার কার্যকারিতা ঠুঁটো জগন্নাথের মতো বলে অভিযোগ।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট