ভারতে গার্ডিয়ান ড্রোন এলে কি হবে? ভয়ে শুকিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান

ভারতে গার্ডিয়ান ড্রোন এলে কি হবে? ভয়ে শুকিয়ে যাচ্ছে পাকিস্তান

দক্ষিণ এশিয়ায় যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি করছে আমেরিকা৷ নয়াদিল্লিকে অস্ত্র সরবরাহ প্রসঙ্গে এমনই মন্তব্য ইসলামাবাদের৷ পাকিস্তানের আশঙ্কা ভারতকে আমেরিকার অস্ত্র সরবরাহ বন্ধ না হলে ভারতীয় উপমহাদেশে সামরিক উত্তেজনা কমবে না৷

ভারতকে সশস্ত্র ড্রোন সরবরাহ করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ সেই চুক্তিতে প্রবল আপত্তি জানিয়ে ইসলামাবাদের বক্তব্য সামরিক অস্ত্র সরবরাহ দ্রুত বন্ধ না হলে, কখনই শান্তি আসবে না এই অঞ্চলে৷ শনিবার এমনই জানান পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র৷

এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই প্রসঙ্গে নিজেদের উদ্বেগের কথা প্রকাশ করেন মুখপাত্র নাফিস জাকিরা৷ অস্ত্র সরবরাহের হাত ধরে দুদেশের মধ্যে সন্দেহ, উত্তেজনা ও সামরিক মহড়া আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করেন তিনি৷

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুন হোয়াইট হাউজে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈঠকে আমেরিকার পক্ষ থেকে ভারতকে ২২টি অস্ত্রহীন গার্ডিয়ান ড্রোন বিক্রির সিদ্ধান্ত জানানো হয়, যা কৌশলগত দিক থেকে ভারত মহাসাগর এলাকায় ভারতীয় নৌবাহিনীর নজরদারি ক্ষমতা বাড়াবে। আর এ বছরের গোড়ায় ভারতীয় বিমানবাহিনী মার্কিন সরকারের কাছে জেনারেল অ্যাটোমিকস প্রিডেটর সি অ্যাভেঞ্জার এয়ারক্র্যাফট চায়। ভারতও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে এই অস্ত্র চুক্তির জের পড়েছে ইসলামাবাদে বলে মনে করছেন সামরিক বিশেষজ্ঞরা৷

দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে তারা শান্তি বজায় রাখার চেষ্টা করলেও, ভারত তাতে বাধা দিচ্ছে, এই অভিযোগ পাকিস্তানের দীর্ঘদিনের৷ তবে এই অভিযোগের বকলমে কোনও ভয় লুকিয়ে রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে মত বিশেষজ্ঞদের৷ ভারতের সামরকি শক্তির আধুনীকিকরণে পাকিস্তানের কোনও বিশেষ স্বার্থ ক্ষুণ্ণ হচ্ছে কিনা, তাও দেখা দরকার বলে মত তাদের৷

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট