আবিষ্কার নতুন ধরণের ডায়াবেটিস, মারাত্মক ঝুঁকি সনাক্তে ভুল হলে

আবিষ্কার নতুন ধরণের ডায়াবেটিস, মারাত্মক ঝুঁকি সনাক্তে ভুল হলে

বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে নতুন আরেক ধরণের ডায়াবেটিসের সন্ধান পেয়েছেন, যাকে ভুল সনাক্ত করা হয়ে আসছে টাইপ-২ ডায়াবেটিস হিসেবে। এই ভুল সনাক্তকরণের ফলে আক্রান্তের অগ্ন্যাশয়ে ‍গুরুতর জটিলতা সৃষ্টির ঝুঁকি থাকে।

নতুন এই ডায়াবেটিসকে নাম দেয়া হয়েছে টাইপ-৩সি। এতদিন ডায়াবেটিসের স্বীকৃত দুই ক্যাটেগরি ছিল টাইপ ১ ও ২।

নতুন গবেষণা অনুসারে, অগ্ন্যাশয়ের বিশেষ ধরণের প্রদাহ, সেখানকার টিস্যুর অস্বাভাবিক বৃদ্ধি অথবা অগ্ন্যাশয় আংশিক বা সম্পূর্ণ অপসারণের কারণে মানবদেহে ইনসুলিন উৎপাদনের ক্ষমতা ব্যাহত হয়। এর ফল হিসেবে দেখা দেয় টাইপ ৩সি ডায়াবেটিস।

অন্যদিকে টাইপ ২ ডায়াবেটিস তখন হয় যখন দেহ সঠিকভাবে কাজ করার মতো যথেষ্ট পরিমাণ ইনসুলিন তৈরি করতে পারে না, অথবা দেহকোষগুলো ইনসুলিনে স্বাভাবিক অবস্থায় যেভাবে প্রতিক্রিয়া দেখানোর কথা সেভাবে দেখায় না। এর ফলে রক্তের গ্লুকোজ শরীরে জ্বালানি হিসেবে খরচ হওয়ার বদলে রক্তেই থেকে যায় এবং এর পরিমাণ রক্তে ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকে।

যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অফ সারে’র একদল গবেষক ২০ লাখেরও বেশি ব্রিটিশ ডায়াবেটিক রোগীর মেডিক্যাল রেকর্ড পরীক্ষা করে দাবি করেন, যেসব ব্যক্তির আগে অগ্ন্যাশয়ের কোনো ধরণের রোগ ছিল, তাদের মধ্যে ৯৭.৩ টাইপ ২ ডায়াবেটিস আছে বলে সনাক্ত করে সেই অনুসারে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে, যা আসলে তাদের শারীরিক অবস্থার জন্য ভুল চিকিৎসা এবং এতে তাদের অগ্ন্যাশয় আরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

গবেষকরা যুক্তরাজ্যের সরকারি স্বাস্থ্যসেবা সংস্থা ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসেসসহ (এনএইচএস) সব স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের বিভিন্ন ধরণের ডায়াবেটিস সনাক্ত করার ব্যাপারে আরও বেশি সচেতন থাকতে বলেছেন, যেন ছোট একটা ভুলের কারণে রোগী ভুল চিকিৎসার কবলে না পড়েন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট