মুস্তাফিজ ইংল্যান্ড যাচ্ছেন ১৩ জুলাই

মুস্তাফিজ ইংল্যান্ড যাচ্ছেন ১৩ জুলাই

গত এক সপ্তাহের ঘটনা প্রবাহের দিকে তাকালে তার ইংলিশ কাউন্টি দল সাসেক্সে যোগ দেওয়াটা সময়ের ব্যাপার বলে মনে হচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত সময়টা নির্ধারিতও হয়ে গেছে।

অনেক অপেক্ষা আর আকাঙ্ক্ষার পর মুস্তাফিজুর রহমানকে পাচ্ছে ইংল্যান্ডের দলটি। সাসেক্সের জার্সি গায়ে জড়াতে আগামী ১৩ জুলাই ঢাকা ছাড়বেন কাটার মাস্টার। এতে ন্যাটওয়েস্ট টি-টুয়েন্টি ব্লাস্ট ও রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপে সাসেক্সের হয়ে মাঠে নামতে পারবেন ফিজ।

বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, মুস্তাফিজের ডাক্তারি রিপোর্টে সবুজ সংকেত মিলেছে। সময় মতো ভিসা হয়ে গেলে সে ১৩ জুলাই ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে।

কাটার মাস্টার আইপিএল থেকে ডান পায়ের চোট বয়ে এনেছিলেন। দেশে ফেরার পর কয়েকদিনের ছুটি কাটিয়ে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্যে ছিলেন তিনি।  সব ঠিক থাকলে আগামী ১৫ জুলাই হ্যাম্পশায়ারের বিপক্ষে সাসেক্সের হয়ে মাঠে নেমে যেতে পারেন মুস্তাফিজ। দলটির সঙ্গে তার অবস্থানের সময়টা দেড় মাসেরও বেশি দীর্ঘ হচ্ছে। অন্তত ২ আগস্ট পর্যন্ত সাসেক্সের ডেরায় থাকতে হবে ফিজকে।

এর আগে সাসেক্স কোচ মার্ক ডেভিস অনেকটা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই মধ্য জুলাইয়ে মুস্তাফিজকে দলে পাওয়া কথা জানিয়েছিলেন। সম্ভাব্য তারিখ হিসেবে দেশটির গণমাধ্যম মিড সাসেক্স টাইমসকে ১৫ জুলাইয়ের কথা বলেছিলেন তিনিও। তখনই একরকম নিশ্চিত হয়ে যায় কাটার মাস্টারের ইংল্যান্ড যাত্রার বিষয়টি।

তবে এতদিন বিসিবির পক্ষ থেকে মুখ না খোলায় সেটি চূড়ান্ত বলে মেনে নেওয়া যাচ্ছিল না। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অন্য একটি সূত্রে জানা গেছে এরইমধ্যে মুস্তাফিজের লন্ডনের ভিসার প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গেছে।  তিন সপ্তাহ আগে বিসিবির পক্ষ থেকে প্রথমে জানানো হয়েছিল চোট পুনর্বাসনে মুস্তাফিজের অন্তত ৬ সপ্তাহ লাগতে পারে। এরপরই সাসেক্সের পক্ষ থেকে বিসিবির কাছে মুস্তাফিজ সম্পর্কে পরিষ্কার জানতে চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়। পরে দ্রুতই বল হাতে দেখা যায় মুস্তাফিজকে।

পুনর্বাসনে থাকা টাইগার পেসার নেটে বল করতে শুরু করেন। মিরপুর একাডেমি মাঠে অনুশীলনে নেমে প্রথম দিনে নেটে ৬ ওভার বল করেছিলেন এই পেসার। চোট সেরে ওঠার যুদ্ধটা বেগবান হওয়ার আশ্বাস মেলে সেদিনই। এর আগে গত ৯ জুন বিসিবির ফিজিও-ট্রেনারদের তত্ত্বাবধানে শুরু হয়েছিল মুস্তাফিজের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট