বর্তমান সংকট ও দুঃসময়ে সরকারের পাশে থাকার আহ্বান

বর্তমান সংকট ও দুঃসময়ে সরকারের পাশে থাকার আহ্বান

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, বর্তমান সংকট ও দুঃসময়ে সবাইকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাশে থাকার আহ্বান।

শুক্রবার দুপুরে বান্দরবান-কেরানীহাট-চট্টগ্রাম সড়ক পরিদর্শনকালে বান্দরবানের মেঘলা পর্যটন কমপ্লেক্সের সামনে গণমাধ্যমকর্মীদের এ কথা বলেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী জানান, ‘বর্তমান দুঃসসময় এবং একটি সংকটের সময়। যে সময় সাম্প্রদায়িক উগ্রবাদ, আমাদের অস্তিত্ব, অর্জন, উন্নয়নের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ উগ্রবাদ আমাদের আদর্শ এবং চেতনার হুমকি। এই মুহূর্তে আমরা সবাই খন্ড দুর্বল প্রতিবাদ না করে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে শক্তিশালী করা দরকার।

তিনি দাবি করেন, এবারে পবিত্র ঈদুল ফিতরের সময় মানুষের যাতায়াতের ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা সৃষ্টি হয়নি। নির্বিঘ্নেই মানুষ তাদরে গন্তব্যে পৌঁছাতে পেরেছেন। সারা দেশেই মানুষ শান্তিতে ঈদ উদযাপন করতে পারায় সরকার স্বস্তি বোধ করছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের সীমান্ত সুরক্ষা এবং যোগযোগ নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার লক্ষ্যে রামগড় থেকে উখিয়া পর্যন্ত ৮৩২ কি. মি. সড়কপথ নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আগামী এক বছরের মধ্যেই এ সড়কপথ নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে।

বান্দরবান জেলা সদরকে বন্যামুক্ত রাখতে বান্দরবান-কেরানিহাট সড়কের তিনটি পয়েন্টের এক হাজার ৪ শ মিটার সড়কপথ উঁচুকরণ, ২২ কি. মি. সড়কপথ ১৮ থেকে ২৪ ফুট পর্যন্ত প্রশস্তকরণ এবং জেলা শহরকে বন্যামুক্তকরণের জন্য ১৮৫ কোটি টাকা ব্যয়বরাদ্দ ধরা হয়েছে। এসব কাজ শুরু করা হবে আগামী শুস্ক মৌসুমেই।

এ সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি, জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক এবং পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এর আগে মন্ত্রী বাইতুল ইজ্জত, আমতলী ও বাজালিয়া এলাকায় প্রবল বর্ষণে পাহাড়ি ঢলে তলিয়ে যাওয়া সড়কপথ পরিদর্শন করেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক