এখন মোটরসাইকেলে তিনজন আরোহী চড়া প্রায় ৯০ ভাগ বন্ধ

এখন মোটরসাইকেলে তিনজন আরোহী চড়া প্রায় ৯০ ভাগ বন্ধ

রাস্তার মান নিয়ে আমি খুশি নই জানালেন সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দুই বছর আগে চন্দ্রা-নবীনগর ফোর লেনের কাজ সম্পন্ন হলেও এ রাস্তায় একটু বৃষ্টি হলেই গর্ত হয়ে যায়। মেরামতের জন্য বলা হলেও এখনো মেরামত করা হয় নি। আমি গেলেই আমার সামনে একটি গাড়ি নিয়ে চুলা জ্বালিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। তার পরে আর কোনো কাজ হয় না, যা দুর্ভাগ্যজনক।

শনিবার সকালে গাজীপুরের চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক পরিদর্শন করে তিনি এ অসন্তোষের কথা জানান।   মন্ত্রী আরো জানান, রাস্তায় শৃঙ্খলা বজায় রাখতে হবে। আমাদের মানসিকতায় পরিবর্তন আনতে হবে। ফোর লেন, এইট লেন করে কোনো লাভ হবে না যদি রাস্তা দখলে থাকে। রাস্তায় যারা চলে তারা যদি শৃঙ্খলা না মানে তবে এসব করে কী লাভ।

মোটরসাইকেল আরোহীদের ব্যাপারে তিনি জানান, ঢাকায় এখন মোটরসাইকেলে তিনজন আরোহী চড়া প্রায় ৯০ ভাগ বন্ধ করা গেছে। কিন্তু সারা দেশে এটি বন্ধ হয় নি। অনেক রাজনৈতিক কর্মীরা তা মানে না। তারা তিনজন করে মোটরসাইকেলে চড়বে এবং কোনো হেলমেট ব্যবহার করবে না।

এ সময় সড়ক ও জনপথের ঢাকা সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক সবুজ উদ্দিন খান, গাজীপুর মহাসড়ক পুলিশ সুপার সফিকুর রহমানসহ সড়ক ও জনপথ এবং পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, ঈদের ছুটি শেষে কর্মস্থলে ঢাকামুখী মানুষ ফিরতে শুরু করেছেন। তবে মহাসড়কের যানজট পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক