নাজুক দেশের তালিকায় বাংলাদেশের ৪ ধাপ উন্নতি

নাজুক দেশের তালিকায় বাংলাদেশের ৪ ধাপ উন্নতি

ফ্র্যাইজাল স্টেটস ইনডেক্স বা নাজুক দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থার উন্নতি হয়েছে। এই সূচকে বাংলাদেশ ২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে ৪ ধাপ এগিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বেসরকারি গবেষণা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দ্য ফান্ড ফর পিস প্রকাশিত এই সূচকে দেখা গেছে ২০১৫ সালে এই তালিকায় বাংলাদেশ ৩২তম অবস্থানে থাকলেও এই বছর ৩৬তম অবস্থানে উঠেছে।

ওই সূচকে খুব বেশি উচ্চ সতর্কতা ( উচ্চ চরম নাজুক), উচ্চ সতর্কতা(চরম নাজুক), সতর্কতা (নাজুক) এমন মোট ছয়টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ১৭৮টি দেশকে রাখা হয়েছে।

বাংলাদেশ নাজুক ক্যাগরিতে অবস্থান করলেও গত বছরের তুলনায় উন্নতি হয়েছ। সংস্থাটির করা এই তালিকায় সংস্থাটির এবারের তালিকায় সবচেয়ে নাজুক দেশ সোমালিয়া (১ম) গতবার ছিল দ্বিতীয় স্থানে। আর গত বছরের শীর্ষে থাকা সাউথ সুদান এবারের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। আর সবচেয়ে ‘টেকসই দেশ’  গত বছরের মতো এবারও ফিনল্যান্ড(১৭৮তম)।

বাংলাদেশের প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে ভারত, শ্রীলঙ্কা, ভুটান এবং আফগানিস্তানের উন্নতি হয়েছে। দেশগুলোর মধ্যে ভারতের অবস্থান ৭০ নম্বরে, শ্রীলঙ্কা ৪৩ নম্বরে, ভুটান ৭৮ নম্বরে ও আফগানিস্তান ৯ নম্বরে রয়েছে।

Report

তবে তালিকায় অবনতি হয়েছে পাকিস্তান, মিয়ানমার এবং নেপালের। তালিকায় পাকিস্তানের অবস্থান ১৩ নম্বরে,  মিয়ানমার ২৬ নম্বরে ও নেপাল ৩৩ নম্বরে। তালিকায় গতবারের মতো এবারও ৯১ নম্বরে রয়েছে মালদ্বীপ।

উল্লেখ, যুদ্ধ, শান্তি চুক্তি, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও রাজনৈতিক আন্দোলন কীভাবে কোনো দেশকে স্থিতিশীলতার দিকে বা  চরম নাজুকতার দিকে নিয়ে যায় তা বিশ্লেষণে ১২ বছর ধরে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিকসহ ১২টি সূচকের ভিত্তিতে এই তালিকা করে আসছে ওয়াশিংটনভিত্তিক সংস্থাটি।2016heatmap_sml

এতে সবচেয়ে নাজুক দেশের নাম রাখা হয় সবার উপরে। আর সবচেয়ে টেকসই দেশের নাম রাখা হয় সবার নিচে।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক