খালেদা জিয়া বিদেশে পাঠানোর মতো অসুস্থ হননি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খালেদা জিয়া বিদেশে পাঠানোর মতো অসুস্থ হননি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর মতো গুরুতর কোনও সমস্যার কথা শোনেননি বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়ার গুরুতর এমন কোনও সমস্যার কথা শুনিনি, যে কারণে তাকে বিদেশে পাঠাতে হবে। বিদেশে পাঠানোর মতো অসুস্থ তিনি হননি।’

শনিবার সাতক্ষীরার দেবহাটা থানার নতুন ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে দুর্নীতি মামলায় ৫ বছরের কারাদ- দেন রাজধানীর বকশিবাজারে স্থাপিত বিশেষ জেলা জজ আদালত। সেদিন থেকে খালেদা জিয়া পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয কারাগারে বন্দি।

শুক্রবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। সুষ্ঠু চিকিৎসার জন্য তার নিঃশর্ত জামিন ও বিদেশে পাঠানো দরকার।

ওই দিনই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানান, চিকিৎসকদের মতামত পেলে প্রয়োজনে খালেদা জিয়াকে বিদেশে  চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

আজ খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে কথা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া আদালতের নির্দেশে কারাগারে আছেন। তিনি সুস্থ আছেন। সেখানে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে।

তবে খালেদা জিয়া কিছু ক্রনিক রোগে ভুগছেন উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘জেল কোড অনুযায়ী প্রাপ্য সব সুবিধা পাচ্ছেন তিনি (খালেদা)।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেশের জঙ্গিবাদ, মাদক, রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়েও কথা বলেন। দেশে আর কখনো জঙ্গিবাদ মাথা চাড়া দিতে পারবে না বলে জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘ষড়যন্ত্রকারীরা বসে নেই। তবে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী জঙ্গি দমনে যথেষ্ট সজাগ। বর্তমানে  যে অভিযান চলছে তাতে তাদের মাথা চাড়া দেওয়ার সুযোগ নেই।’

মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের সর্বাত্মক অভিযান অব্যাহত আছে উল্লেখ করে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘কোনোভাবেই মাদককে ছাড় দেয়া হবে না। যারা মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত তাদের ছবি দিয়ে সংবাদপত্রে নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হবে।’

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে কফি আনান কমিশন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাঁচ দফা বাস্তবায়ন করতে হবে। এর ভিত্তিতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্ভব হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

পরে মন্ত্রী দেবহাটা বিবিএম পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।

পুলিশ সুপার সাজ্জাদুর রহমারে সভাপতিত্বে সমাবেশে মন্ত্রী বলেন, ২০১৩ সালে সাতক্ষীরাকে একটি মহল অবরুদ্ধ করে রেখেছিল। সেই দিন কেটে গিয়ে এখন এখানে শান্তি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক, সাতক্ষীরা ১, ২ও ৪ আসনের সংসদ সদস্য যথাক্রমে মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, এস এম জগলুল হায়দার, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য রিফাত আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন প্রমুখ।

এরপর মন্ত্রী কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা রওজা শরিফ জিয়ারত শেষে নলতা আহসান উল্লাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্বর্ণকিশোরী অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। পরে বেলা তিনটায় দেবহাটা থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত দেবীশহর ফুটবল মাঠের জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট