তুরস্কে শ্যুটিংয়ে গিয়ে বিপাকে মিমি! 

তুরস্কে শ্যুটিংয়ে গিয়ে বিপাকে মিমি! 

শ্যুটিং করতে গিয়ে তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরের একটি হোটেলে আটকা পড়েছেন অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী সহ একঝাঁক কুশীলব। শুক্রবার রাতে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে অভ্যুত্থানের চেষ্টা চালায় দেশটির সেনাবাহিনী। দেশটির বড় বড় শহরগুলোতে সেনা অভ্যুত্থানের চেষ্টাকালে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়লে মিমিরা আটকা পড়েন।

আগামী ছবির শ্যুটিং করতেই অভিনেতা এবং পশ্চিমবঙ্গের তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ব্রাত্য বসু, অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত, গৌরব, অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী সহ প্রায় ৪০ জনের ইউনিট নিয়ে তুরস্কে গেছেন পরিচালক বিরসা দাশগুপ্ত। কিন্তু শুক্রবার রাতে তুরস্কে সেনাবাহিনীর একটি অংশের অভ্যুত্থানের চেষ্টার ফলে গোটা দেশ জুড়েই অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। তার জেরেই হোটেলে আটকে পড়েছেন মিমি সহ অন্যরা।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকেও তুরস্কে অবস্থানরত সমস্ত ভারতীয়দের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আগ পর্যন্ত বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

ইন্টারনেট পরিসেবা বন্ধ থাকায় আটকে পড়াদের সাথে সঙ্গে যোগাযোগ করাও অসম্ভব হয়ে পড়েছে। স্বাভাবিকভাবেই টালিগঞ্জের স্টুডিও পাড়াতেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও ব্রাত্য বসু সহ প্রত্যেকেই নিরাপদে ও সুস্থ রয়েছেন বলেই জানা গেছে। এরই মধ্যে পরিচালক বিরসা দাশগুপ্ত আশ্বস্ত করে জানিয়েছেন তারা সকলেই নিরাপদেই আছেন।

শুক্রবারই সেখানে গিয়েছেন ব্রাত্য বসু। শ্যুটিং শেষে আগামী ২০ তারিখ তার দেশে ফেরার কথা। শনিবার সকালেই লোকেশনে বেরোনোর কথা ছিল কুশীলবদের। কিন্তু এই অশান্ত পরিস্থিতিতে আজকে শ্যুটিং করা যাবে কি না তা নিয়ে নিশ্চয়তা মেলেনি। যদিও শ্যুটিং করা সম্ভব কি না তা নিয়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করছেন তারা।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট