গার্লস স্কুলে কম বয়সী শিক্ষক নয়!

গার্লস স্কুলে কম বয়সী শিক্ষক নয়!

অদ্ভুত আইন! শিক্ষকদের জন্য অপমানজনকও বটে! পঞ্চাশের নীচে বয়স হলে পুরুষ শিক্ষকরা মেয়েদের স্কুলে পড়াতে পারবেন না। ‘‌শিক্ষক বদলি নীতি-২০১৬’‌ সালের আওতায় এই নিয়ম চালু করতে চলেছে ভারতের হরিয়ানা সরকার।

মেয়েদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতেই নাকি এই পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে, দাবি বরাবর বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য পরিচিত রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রাম বিলাস শর্মার।

তার মতে, হিন্দু মতে একটা নির্দিষ্ট বয়সের পর মেয়েদের নিরাপত্তার দিকে বিশেষ নজর দিতে হয়। এমনও হয়েছে যে নিজের শিক্ষকের প্রতি আকর্ষিত হয়ে পড়েছে তারা। অতীতে ছেলে ও মেয়েরা একই স্কুলে পড়াশোনা করত। কিন্তু আলাদা স্কুলের প্রয়োজন বুঝে স্বামী দয়ানন্দ সরস্বতীই আলাদা স্কুলের সুপারিশ করেন। তাই মেয়েদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে রাজ্য সরকার।

৫০-এর নিচে বয়স হলে পুরুষ শিক্ষকরা মেয়েদের স্কুলে চাকরির জন্য আবেদন না করলেই পারে। আর এস এস মতাদর্শে বিশ্বাসী রাম বিলাস এর আগেও বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। তার নির্দেশেই গত মাসে শিক্ষিকাদের জিনস পরা নিয়ে বিধি নিষেধ চাপায় শিক্ষা দপ্তর। পরে সমালোচনার মুখে পড়ে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে বাধ্য হয়।

রাম বিলাসের মত সরাসরি মেয়েদের নিরাপত্তার অজুহাত না দিলেও, রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ক্যাপ্টেন অজয় সিং যাদবও এই নতুন নিয়মকে সমর্থন করেছেন। তার দাবি, পঞ্চাশোর্ধ শিক্ষকরা অনেক বেশি পরিণত।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট