আবারো ব্যাটে-বলে জ্বলে উঠলেন সাকিব

আবারো ব্যাটে-বলে জ্বলে উঠলেন সাকিব

ব্যাটিংয়ে নামেন ১৬তম ওভারের পঞ্চম বলে। বোলিংয়ে প্রথমবারের মতো আক্রমণে আসেন ১২তম ওভারে। সামান্য যে সুযোগটুকু পেয়েছেন সেটি পুরোপুরি কাজে লাগিয়েছেন সাকিব আল হাসান। সাকিবের অলরাউন্ডন্ডিং পারফরম্যান্স ও বোলারদের দাপটে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (সিপিএল) ম্যাচে দুর্দান্ত এক জয় পেয়েছে জ্যামাইকা তালাওয়াহস।

বাংলাদেশ সময় রোববার সকালে সেন্ট কিটস এন্ড নেভিসকে ১০৮ রানের বড় ব্যবধানে পরাজিত করেছে সাকিবের দল।

সিপিএলে ছয় ম্যাচে এটি সাকিবের জ্যামাইকার চতুর্থ জয়। এক ম্যাচে হারের পাশাপাশি আরেকটি ম্যাচে পয়েন্ট ভাগাভাগি করে জ্যামাইকা। আপাতত পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে রয়েছে জ্যামাইকা। আগের ম্যাচে ৫৪ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলার পাশাপাশি এক উইকেট নেওয়ায় ম্যাচ-সেরার পুরস্কার পান সাকিব। রোববারও সেরা খেলোয়াড় পুরস্কার না পেলেও ঠিকই সবার মন জয় করে নেন এই টাইগার অলরাউন্ডার।

রোববার আগে ব্যাটিংয়ে নেমে কুমার সাঙ্গাকারা, সাকিব ও রভম্যান পাওয়েলের দু্র্দান্ত ব্যাটিংয়ের সুবাদে নির্ধরিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৩ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর সংগ্রহ করে জ্যামাইকা। জবাবে ক্যাসরিক উইলিয়ামস, ডেল স্টেইন, আন্দ্রে রাসেল ও সাকিবের চতুর্মুখী বোলিং আক্রমণের মুখে পড়ে ১৫.৫ ওভারে ৭৫ রানেই গুটিয়ে যায় কেন্ট কিটস এন্ড নেভিস।

জ্যামাইকার হয়ে ম্যাচ-সেরার পুরস্কার পাওয়া সাঙ্গাকারা ৪৭ বলে ৬৫ ও পাওয়েল করেন ২৩ বলে ৩৫ রান। ১৫.৫ ওভারে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৭ বলে ৫টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৩৪ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন সাকিব। ফলে ক্রিস গেইল (১) ব্যর্থ হলেও বড় সংগ্রহ পায় জ্যামাইকা।

সেন্ট কিটসের হয়ে ক্রিসমার সান্তোকি তিনটি এবং সেল্ডন কট্রেল ও তাভরেজ শামসি নেন একটি করে উইকেট।

জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে উইলিয়ামস, স্টেইন, রাসেল ও সাকিবের চতুর্মুখী বোলিং আক্রমণের মুখে দিশেহারা হয়ে পড়ে সেন্ট কিটস। ব্যাটসম্যানদের চরম ব্যর্থতায় ৭৫ রানে গুটিয়ে গিয়ে ১০৮ রানের বড় হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে দলটি।

সেন্ট কিটসের হয়ে জোনাথন কার্টার সর্বোচ্চ ২৩ রান করেন। আর কোনো ব্যাটসম্যান ২০’র কোটা স্পর্শ করতে পারেননি। এভিন লুইস ১৭, ক্রিসমার সান্তোকি ১৬ ও ফাফ ডু প্লেসিস ১২ রান করলেও সেটি দলের লজ্জা এড়াতে পারেনি।

জ্যামাইকার হয়ে ৪ ওভারের স্পেলে মাত্র ১৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন উইলিয়ামস। তবে বড় বাজিমাত করেন সাকিব ও ডেল স্টেইন। ২ ওভারের স্পেলে মাত্র ২ রান দিয়ে দুটি উইকেট নেন বাংলাদেশি অলরাউন্ডার। আগুন-ঝরানো বোলিংয়ে ৩.৫ ওভারে মাত্র ৫ রান দিয়ে দুটি উইকেট নেন স্টেইন। রাসেলও নেন দুটি উইকেট।

প্রসঙ্গত, আগামী মঙ্গলবার নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সের মুখোমুখি হবে জ্যামাইকা। বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার সকাল সাতটায় ম্যাচটি শুরু হবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট