বিদেশিদের চাইতে দেশের মধ্যে অনেকেই ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে সক্রিয়: প্রধানমন্ত্রী

বিদেশিদের চাইতে দেশের মধ্যে অনেকেই ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে সক্রিয়: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন, বিদেশিদের চাইতে দেশের মধ্যে অনেকেই বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে সক্রিয়। এখানেই অনেকে জঙ্গিবাদে অর্থ দিচ্ছে পরামর্শ দিচ্ছে। জঙ্গিদের পাশাপাশি এদেরও ছাড় দেয়া হবে না। আসেম সম্মেলন থেকে ফিরে রোববার গণভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী জানান, সম্মেলনে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের শক্ত অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে। তুরস্কের সাম্প্রতিক ঘটনার উল্লেখ করে তিনি জানান, বাংলাদেশ সবসময় অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার বিরুদ্ধে।

শেখ হাসিনা জানান, ‘যখন আমরা আসেম সম্মেলনে তখনই ফ্রান্সে হামলার ঘটনার খবর আসে। আমি তখনও নিন্দা জানিয়েছি, এখনও নিন্দা জানাচ্ছি। এরপরই তুরস্কের সেনা অভ্যুত্থানের খবর আসে।’

তিনি জানান, ‘আসেম সম্মেলনে আমি আমার বক্তব্যে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের কথা তুলে ধরি। পাশাপাশি জঙ্গিবাদের মদদদাতা, অর্থদাতা, অস্ত্রদাতাদের খুঁজে বের করতে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করি।’

সন্ত্রাসবাদ ও উগ্রবাদ রোধে সরকারের অবস্থান উল্লেখ করে শেখ হাসিনা জানান, ‘বিভিন্ন দেশের কয়েকজন নেতার সঙ্গে সাইডলাইনে আমার বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে সন্ত্রাসবাদ প্রতিহতে সরকারের জিরো টলারেন্সের কথা পুনর্ব্যক্ত করেছি। এ ছাড়া গুলশানে হামলার ঘটনা তদন্তে আমাদের উদ্যোগ জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেছি।’

প্রধানমন্ত্রী আরো জানান, গুলশানে হামলার ঘটনা বাংলাদেশে জাপানি বিনিয়োগ ও অন্যান্য বিনিয়োগে কোনো প্রভাব ফেলবে না।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক