প্রধানমন্ত্রী মহাকাশ জয় করতে পারলেও জনগণের মন জয় করতে পারেনি-এরশাদ

প্রধানমন্ত্রী মহাকাশ জয় করতে পারলেও জনগণের মন জয় করতে পারেনি-এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। আর এই পরিবর্তনের জন্য জাতীয় পার্টি মানুষের মনে আশার সঞ্চার করেছে।

শনিবার রাজধানীর গুলশানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার মানুষের মন জয় করতে ব্যর্থ হয়েছে।

মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘বাংলাদেশে জাতীয় পার্টির আসার সময় হয়ে গেছে। এত জনসমাগম কেন? মানুষ বোঝে না, মানুষ সবই বোঝে। মানুষের এখন জাতীয় পার্টির প্রয়োজন। সেটা বোঝা হয়ে গেছে। মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে জাতীয় পার্টি।’

ঘরে খুন আর ধর্ষণের, বাইরে বাসের চাকায় পিষ্ট হওয়ার শঙ্কা : এরশাদ

তিনি আরো বলেন,’মানুষের মনে সত্যতা অর্জন করতে হবে। আর জাতীয় পার্টি সেই সত্যতা অর্জন করতে পেরেছে। জনগণ এখন জাতীয় পার্টিকে বিশ্বাস করে। মহাকাশে আমাদের যান চলে গেছে। একসময় আমরা সমুদ্র জয় করেছিলাম। এখন আমরা মহাকাশ জয় করেছি। প্রধানমন্ত্রী মহাকাশ জয় করতে পারলেও জনগণের মন জয় করতে পারেনি। মহাকাশ জয় করেছে, সমুদ্র জয় করেছেন কিন্তু মানুষের মন জয় করতে পারেননি। মানুষের মন জয় করেছে জাতীয় পার্টি।’

এরশাদ বলেন, ‘এখন মানুষের জীবনের কোন মূল্য নেই। ঘরে থাকলে হয় ধর্ষণ, বাইরে গেলে হত্যা। মানুষের জীবনের কোন নিরাপত্তাও নেই। কয়টা মানুষ হত্যা হল,কয়জন নিহত হল,কয়জনকে ধর্ষণ করা হল কেউ তা খোঁজ রাখে না।কিন্তু জাতীয় পার্টি এসবের হয়ে কাজ করেছে,করবে।’

কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সফলভাবে উৎক্ষেপণে এরশাদের অভিনন্দন

দেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সফলভাবে উৎক্ষেপণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জাতীয় পার্টির চেয়াম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। স্যাটেলাইট বিশ্বের ভিআইপি ক্লাবে ৫৭তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অন্তর্ভূক্তির এই প্রকল্প ও প্রযুক্তির সাথে সম্পৃক্তদেরও শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

শনিবার এক অভিনন্দন বার্তায় সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, বলেন, এই উপগ্রহ সাফল্যের সাথে উৎক্ষেপণের দিনটি আমাদের জাতীয় জীবনের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। ১২ মে রাত ২টা ১৪ মিনিটে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সফলভাবে উৎক্ষেপণ জাতির জন্য সম্মান ও গৌরবের। তিনি আশা প্রকাশ করেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সফল পরিচালনায় বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের মর্যাদা আরো বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি দেশের স্যাটেলাইট টেলিভিশনগুলোকে ভাড়া বাবদ বিশাল অংকের টাকা আর অন্য কোনো দেশকে দিতে হবে না। এছাড়া ইন্টারনেট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান, ভি-স্যাট ও বেতারসহ চল্লিশ ধরনের সেবা নিশ্চিত হবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১-এর মাধ্যমে। স্যাটেলাইট যুগে বাংলাদেশের প্রবেশকে সাহসি সিদ্ধান্ত বলেও মনে করেন তিনি।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট