সামান্য মুনাফার জন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি পণ্যে ভেজাল না দেওয়ার আহ্বান

সামান্য মুনাফার জন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি পণ্যে ভেজাল না দেওয়ার আহ্বান

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন, সামান্য মুনাফার জন্য রফতানি পণ্যে ভেজাল দিয়ে দেশের সুনাম নষ্ট না করার।বুধবার সকালে রাজধানীর ফার্মগেটের কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন শেষে তিনি একথা জানান।

এসময় তিনি শুধু রফতানি পণ্যের সঙ্গে সঙ্গে নিজের দেশের বাজারজাতকরণ পণ্যের দিকেও নজর দেয়ার আহবান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী জানান, ‘বাংলাদেশের যে পরিমাণ সমুদ্রসীমা-নদ-নদী-খাল-বিল-হাওর রয়েছে, তাতে যত্নবান হলে মৎস্য উৎপাদনে চতুর্থ নয়, প্রথম হতে পারে বাংলাদেশ। এজন্য মৎস্য উৎপাদন, বাজারজাতকরণ ও রপ্তানিতে ব্যবসায়ীদের গুণগত মান ঠিক রাখতে হবে।’

শেখ হাসিনা জানান, দেশের ১ কোটি ৮২ লাখ মানুষের জীবন-জীবিকা মৎস্য সম্পদের সঙ্গে সম্পর্কিত। কৃষিজ আয়ের প্রায় ২৪ ভাগ আসে এ খাত থেকে। জিডিপিতে মৎস্যসম্পদের অবদান প্রায় ৪ শতাংশ। প্রাণীজ আমিষের ৬০ ভাগ যোগান দেয় মৎস্য খাত।

‘এসব কথা চিন্তা করে আওয়ামী লীগ যখনই সরকার গঠন করেছে তখনই দেশের মৎস্য সম্পদ রক্ষা ও উৎপাদন বৃদ্ধির উপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী জানান, কথায় আছে ‘মাছে-ভাতে বাঙালি’। আমরা যেখানেই যাই, যতো কিছুই খাই, শেষ পর্যন্ত মাছ-ভাত না খেলে আত্মতৃপ্তি আসে না। সুতরাং আমরা যারা মাছ খাই তারা নিজেরা খাবো, যারা খেতে পারে না, তাদেরও খাওয়ার ব্যবস্থা করবো।

দেশে মৎস্যখাতে অনন্য অবদানের জন্য অনুষ্ঠানে ২০ জন মৎস্যচাষিকে পুরস্কৃত করা হয়। এদের মধ্যে পাঁচজনকে দেওয়া হয় স্বর্ণপদক এবং ১৫ জনকে দেওয়া হয় রৌপ্য পদক।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক