প্রতিদিন ৩০ মিনিট স্মার্টফোন বন্ধে মিলবে সুফল!

প্রতিদিন ৩০ মিনিট স্মার্টফোন বন্ধে মিলবে সুফল!

রাতদিন-দিনরাত, স্মার্টফোনে আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছে মানুষ। ২৪ ঘণ্টা খোলা থাকে ফোন, চলে ইন্টারনেট। রাতে শোয়ার সময়ও মাথার কাছে চার্জ হয় ফোন। এতে বছরখানেকের বেশি কোনও স্মার্টফোনই টেকে না। সলিল সমাধিতে শায়িত হয়। কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দিনে অন্ততপক্ষে ৩০ মিনিট ফোন সুইচ অফ করে রাখলে মিলতে পারে সুফল।

ব্যাটারি- স্মার্টফোনের প্রাণভোমরাটি হল এই ব্যাটারি। ব্যাটারি অন, তো সব স্বাভাবিক ছন্দে চলবে। ব্যাটারি গন হলেই ফোন অকেজো। জীবনটাকেও কোড়াকাগজের বেশি কিছু মনে হয় না তখন। তার উপর স্মার্টফোনের ব্যাটারির মতো আদুরে পদার্থ পৃথিবীতে এখনও তৈরি হয় নি। কথায় কথায় তার খিদেতে প্রাণ চো চো করে ওঠে। ক্রমে কমতে থাকে দমের পার্সেন্টেজ। একলাফে ৯৯ থেকে ৫৪, তারপর ৫৪ থেকে কখন ১ পার্সেন্ট হয়ে কুকু শব্দে চিরনিদ্রায় চলে যাবে, তা কেউ ভবিষ্যদ্বাণী করতে পারে না। সবচেয়ে অত্যাচারিত হতে হয় এই ব্যাটারিকেই। ব্যাটারির দম দমদার করে তুলতে সারারাত পিছনে চার্জ গুঁজে রাখলেও কাজের কাজ কিছুই হয় না। বেলা ১২টা বাজতে না বাজতেই খিদেতে কুককুক করতে শুরু করে।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, এর চেয়ে নিস্তার পেতে নিয়ম করে ৩০ মিনিট ফোন বন্ধ রাখুন। তাতেই নাকি ব্যাটারি ফিরে পাবেন সঠিক চার্জ। সারাদিনে যত অত্যাচারই চলুক না কেন, পেটানো ঘোড়ার মতো টগবগ করে দৌড়বে।

স্মার্টফোনের সফ্টওয়্যারের কথা ভুলে গেলে চলবে না। বেশ জটিল ও কুটিল সেই সফ্টওয়্যার। হাজার রকম অ্যাপ ডাউনলোড করে রাখার কারণে সফ্টওয়্যার মাঝেমাঝেই কনফিউসড্ওয়্যারে পরিণত হয়। ফোন হ্যাঙ্গ করে অনেকটা সেই কারণেই। ৩০ মিনিট অফ করে রাখলে সফ্টওয়্যার রিবুট করতে পারবে ভালো মতো।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট